27 Nov 2020

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি?

স্বাবলম্বী ও আত্মনির্ভরশীল হতে গ্রাফিক্স ডিজাইন হতে পারে উত্তম মাধ্যম

সবকিছুর অগ্রগতির সাথে গ্রাফিক্স ডিজাইনের প্রয়োজনীতাও দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। পানি পান করার বোতল হতে বইয়ের কভার, টিভির বিজ্ঞাপন সর্বত্র গ্রাফিক্স এর ছোঁয়া। আমাদের মনের অনেক কথাই ডিজাইনের মাধ্যমে সকলের কাছে উপস্থাপন করতে পারি। মুলত ডিজাইনকে ভাষা প্রকাশের আরেকটি সুন্দর মাধ্যমও বলা যায়। আর এই গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজকে প্রফেশন হিসেবে নিতে চান অনেকেই কিন্তু প্রশ্ন জাগে গ্রাফিক্স ডিজাইন কি? 

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি?

 এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গেলে বলতে হয় আমাদের দক্ষতা, শিল্প, জ্ঞান ও ছবির মিশ্রণে কোন সৃজনশীল চিত্রের উপস্থাপন করা। 

যাদের আঁকাআঁকি করার শখ থাকে এবং ক্রিয়েটিভ গুন আছে তারা এই প্রফেশনে সহজেই সফলতা অর্জন করতে পারে। 

এখন প্রশ্ন আসতে পারে আমি আঁকাআঁকি পারিনা তাহলে কি আমি গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ শিখতে পারবো না? 

হ্যাঁ, অবশ্যই পারবেন, যদি আপনার শিখার প্রবল আগ্রহ ও দৃঢ় প্রতিজ্ঞা থাকে। 

গ্রাফিক্স ডিজাইনের সফটওয়্যার সমূহ :

গ্রাফিক্সের কাজগুলো রূপদানের জন্য যে সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয় সেগুলো সম্পর্কে কিছু জ্ঞান থাকা প্রয়োজন। 

গ্রাফিক্স এর কাজ করতে গেলে যেসকল সফটওয়্যার গুলো প্রয়োজন তার মধ্যে কিছু ফ্রি সফটওয়্যার হলো :

★ Adobe Illustrator

★Adobe Photoshop

★Adobe Premiere Pro

★Adobe After Effect

আর এ সকল সফটওয়্যার ব্যবহারের জন্য আপনাকে অবশ্যই এর টুলস সম্পর্কে দক্ষ হতে হবে। আপনার চিন্তার বাস্তব রূপদানের জন্য কোন টুলস কোথায় ব্যবহার করতে হবে? কালার কম্বিনেশন কি হবে? লেয়ার সিলেকশন  কিভাবে করতে হয়? এমন সব প্রশ্নের উত্তর পাবেন আমাদের STS এর  গ্রাফিক্স কোর্সে। 

গ্রাফিক্সের জনপ্রিয় কাজসমূহ:

গ্রাফিক্সের নাম আসলেই মনে প্রশ্ন জাগতে পারে কি কি কাজ করতে হয় এই প্রফেশনে? 

গ্রাফিক্স এর বিশাল জগতের জনপ্রিয় কিছু কাজ আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

গ্রাফিক্সের কাজ গুলোর মধ্যে বিশেষ করে লোগো, এনিমেটেড ব্যানার, বিজনেস কার্ড, ফ্লায়ার, এড ডিজাইন, টি শার্ট ডিজাইন, পোস্টার, ভিডিও ইডিটিং,  প্রোফাইল ডিজাইন, প্যাকেজিং ডিজাইন, প্রেজেন্টেশন  ইত্যাদি কাজগুলো অনলাইন মার্কেট প্লেসে খুব জনপ্রিয়।

গ্রাফিক্সের এ কাজ গুলো শিখে আপনি একজন প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে অনলাইনে কাজ করতে পারবেন। স্বাবলম্বী ও আত্মনির্ভরশীল হওয়ার স্বপ্নপূরনের  জন্য গ্রাফিক্সকে অন্যতম মাধ্যম হিসেবে গ্রহন করতে পারেন নির্ভয়ে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে কিছু ধারনা নেওয়া যাক 

অনলাইন মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে ধারনা দেয়ার পূর্বে আমরা অনলাইন মার্কেটপ্লেস এর কাজের গতি সম্পর্কে কিছু ধারনা নিতে পারি। 

যেহেতু, Covid 19 এর পর থেকে সবকিছু স্থবির হয়ে গিয়েছিলো তাই এখন মানুষ সম্পূর্ণ অনলাইন এর দিকে ঝুঁকে পড়েছে। বড় বড় কোম্পানিগুলো এখন অনলাইন থেকে কাজ করিয়ে নিচ্ছে। মূলত এখন অনলাইন কাজটি এক ধরনের ট্রেন্ড হয়ে গিয়েছে। মানুষ ঘরে বসেই নিজের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে প্রতি মাসে সর্বনিম্ন ৫০ হাজার থেকে ১,০০,০০০ টাকা আয় করতে পারছে।

আপনার যেকোন দক্ষতা থাকলে তা কাজে লাগিয়ে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন। অনলাইনে মূলত আপনার কাজ বিক্রি করে আয় করাকে বুঝায়।সেটা হতে পারে Logo Design, Brand Design, Banner Design, Packaging, বা আপনার অন্য যেকোন দক্ষতা।  

অনলাইন মার্কেটপ্লেসের অসংখ্য সাইট থেকে কিছু জনপ্রিয় সাইট সম্পর্কে বলা যায় যে সাইট গুলোতে প্রাথমিক অবস্থায় আপনার যেকোন স্কিল দিয়ে  কাজ করে আয় করতে পারবেন। Freelancer.com , 99 Design, Fiver, Upwork, এই সাইটগুলো খুব জনপ্রিয় ও খুব সহজে কাজ করে আয় করা যায়। এবং যতো বেশি দক্ষ হওয়া যাবে আয়ের পরিমান ততো বাড়তে থাকবে। 

যেহেতু অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বাহিরের ক্লাইন্ট বেশি হয় তাই পেমেন্ট সাধারণত ডলারেই হয়ে থাকে। এখন প্রশ্ন আসতে পারে বিদেশি ডলার কিভাবে বাংলাদেশে আনা যাবে? 

ডলার বাংলাদেশে আনার জন্য কিছু প্লাটফর্ম আছে সেগুলোর মধ্যে জনপ্রিয় ও বহুল ব্যবহৃত প্লাটফর্মগুলো হলো  Paypal, Neteller, Payoneer and Skrill  এই প্লাটফর্মগুলোর মাধ্যমে খুব সহজে আপনার আয়কৃত টাকা আপনার হাতে পেয়ে যাবেন।  

Paypal সবার কাছে পছন্দের হলেও এতে account করতে আপনার কিছু ঝামেলা পোহাতে হতে পারে। তবে Payoneer বাংলাদেশের Asia Bank এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় আপনি খুব সহজেই আপনার আয়কৃত টাকা আপনার হাতে পেয়ে যাবেন। তাছাড়া Skrill ও আয়কৃত টাকা দেশে আনার জন্য একটি অন্যতম প্লাটফর্ম।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কাজ শিখতে কতোদিন লাগবে?

এখন সবার মনেই প্রশ্ন জাগতে পারে গ্রাফিক্স কাজ শিখতে কতোদিন লাগতে পারে? 

গ্রাফিক্স এর ডিগ্রী করলে আপনাকে অবশ্যই  ৪ বছরের কোর্স করতে হবে। যা অনেক লং প্রসেস।

কিন্তু ৬ মাস থেকে ১ বছর পর্যন্ত সম্পূর্ণ একাগ্রতার সাথে এ কাজে লেগে থাকলে অবশ্যই একজন প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মতো কাজ করা সম্ভব ও অনলাইন থেকে ভালো এমাউন্টের কাজ করতে পারবেন। 

এই কোর্সটি করতে হলে আপনাকে অবশ্যই ধৈর্য নিয়ে  শিখতে হবে সাফল্য অর্জন না হওয়া পর্যন্ত।

অবশেষে বলবো বর্তমানে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের চাহিদা সবচেয়ে বেশি তাই আপনি নিশ্চিন্তে এই প্রফেশনকে আপনার ক্যারিয়ার হিসেবে গ্রহন করতে পারেন। আমাদের STS IT তে গ্রাফিক্স এর ৬ মাস কোর্স করানো হয় দক্ষ ট্রেইনার দ্বারা এবং অনলাইনে আয় করা পর্যন্ত সম্পূর্ণ আমাদের দায়িত্ব। ১ বছরের মধ্যে একজন প্রফেশনাল ডিজাইনারের মতো আয় করতে পারবেন। এবং একজন উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *